নিজস্ব প্রতিনিধি: স্ত্রী কর্তৃক তালাক দেওয়ার ক্ষোভে শ্বশুরকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে জামাতার বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (২২ জুন) রাত ১টার দিকে উপজেলার মাটিকুমড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আজগর আলী সরদার (৫৫) ওই গ্রামের মৃত সুরত আলী সরদারের ছেলে।

আজগরের ভাই আক্তার হোসেন সরদার বলেন, দুই বছর আগে আজগরের ছোট মেয়ে শিল্পী খাতুনের সঙ্গে কালিগঞ্জ উপজেলার তারালী ইউনিয়নের বরেয়া গ্রামের সালাহউদ্দিনের বিয়ে হয়। সালাহউদ্দিন শিল্পীর খালাতো ভাই। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবিতে শিল্পীকে প্রায়ই নির্যাতন করতেন সালাহউদ্দিন। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিশও ডাকা হয়েছে। কিন্তু এরপরও নির্যাতন বন্ধ না হওয়ায় ১০ দিন আগে আজগর শিল্পীকে বাড়িতে নিয়ে আসেন এবং শিল্পী খাতুন সালাউদ্দীনকে তালাক দিয়ে তালাকনামা পাঠিয়ে দেন।

তিনি বলেন, তালাক পাঠানোর ঘটনায় সালাহউদ্দিন ক্ষুব্ধ হয়ে মঙ্গলবার রাতে আমার ভাই ভাত খেয়ে ঘরের বারান্দায় মশারি টাঙিয়ে ঘুমিয়ে পড়লে রাত ১টার দিকে সালাহউদ্দিন মশারির ওপর দিয়েই তাকে কুপিয়ে চলে যান। এসময় গুরুতর অবস্থায় তাকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে ভর্তি না নেওয়ায় তাকে নিয়ে যাওয়া হয় খুলনা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোর ৫টার দিকে আজগরের মৃত্যু হয়।

দেবহাটা থানার ওসি শেখ ওবায়দুল্লাহ জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

By S V

Leave a Reply

Your email address will not be published.