সাতক্ষীরার তুজলপুর হাইস্কুলের স্থগিতকৃত নিয়োগ বোর্ড ৭ই ফেব্রুয়ারী – Satkhira Vision

March 2, 2021, 7:48 am

সংবাদ শিরোনাম :
সাতক্ষীরা: গাঁজাসহ কুশখালীর প্রফেশনাল মাদক ব্যবসায়ী আজগর গ্রেফতার কলারোয়া: আশা ইলেকট্রিক ওয়ার্কশপে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৩লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি সাতক্ষীরা: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করোনার ভ্যাক্সিন নিলেন সাতক্ষীরা ভিশনের বার্তা সম্পাদক জাকির সাতক্ষীরা: আশাশুনির জাকিরকে খুনের দায়ে স্ত্রীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কলারোয়া: ৭টি ব্রান্ড নিয়ে বাপ্পি টেলিকমের নতুন শো-রুম উদ্বোধন স্কুল-কলেজ খুলছে ৩০ মার্চ সঠিক ও নির্ভুল পরিসংখ্যান একটি দেশের উন্নয়নের প্রথম শর্ত সাতক্ষীরা: বর পছন্দ না হওয়ায় নববধূূূর আত্মহত্যা সাতক্ষীরা: ভাটায় যাওয়ার আগেই মাটির ট্রাক্টর কেড়ে নিল ২ শ্রমিকের প্রাণ
সাতক্ষীরার তুজলপুর হাইস্কুলের স্থগিতকৃত নিয়োগ বোর্ড ৭ই ফেব্রুয়ারী

সাতক্ষীরার তুজলপুর হাইস্কুলের স্থগিতকৃত নিয়োগ বোর্ড ৭ই ফেব্রুয়ারী

এসভি ডেস্ক: সাতক্ষীরা সদরের তুজলপুর জিসি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী (কাম কম্পিউটার) অপারেটর পদে নিয়োগ বোর্ড ৭ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে ১২ লাখ টাকায় নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ তুলে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন স্কুল পরিচালনা কমিটির সদস্যরা।

ফলে ২৮ই জানুয়ারী নিয়োগ বোর্ডটি স্থগিত করে দেয়া হয়। স্কুল সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার সিদ্ধান্তে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারী নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে এ মর্মে প্রধান শিক্ষক পরীক্ষার্থীদের প্রবেশ পত্র প্রদান করেন।

১১ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে ১০ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করেন। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে নুরুজ্জামান একজন শিবির কর্মী বলে অভিযোগ উঠে। এছাড়াও নুরুজ্জামানের পিতা শওকত হোসেন বিএনপি জামাতের নাশকতা মামলার এজাহারভুক্ত আসামী। ওই পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সভাপতিকে ১২ লাখ টাকায় ম্যানেজ করে মনগড়া একটি নিয়োগ বোর্ডের মাধ্যমে নিয়োগ নেওয়ার পায়তারা চালায়। প্রধান শিক্ষক ও বিদ্যালয় কমিটির সভাপতি ওই পরীক্ষার্থীকে সুপারিশ নিয়ে চাকুরী দেয়ার জন্য বিভিন্ন মহলে তদবীরে করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ ওঠে। এছাড়া ওই পদে নিয়োগের জন্য বিভিন্ন জায়গায় দৌড় ঝাঁপ ও তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ অভিযোগ রয়েছে।

কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন নিয়োগ পরীক্ষা ফেয়ার হবে। এছাড়াও বাকী ৯ জন পরীক্ষার্থীরা হলেন ইনজামামুল হক ফরিদ, আবু সবুজ, আশরাফ হোসেন, আব্দুল্লাহ, আবু সামা, সেলিম হোসেন, ইমরান।

উল্লেখিত নিয়োগ বানিজ্যের সংবাদটি ২৮ জানয়ারী বহুল প্রচলিত কয়েকটি দৈনিক পত্রিকা ও অন লাইন পোটোকলে প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত হওয়ার পর উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা পাতানো ১২ লাখ টাকার বিনিময়ে নিয়োগ বোর্ড বন্দ করে দেন।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT