নিজস্ব প্রতিনিধি: সদরের কুশখালী ইউনিয়নের বাউকোলা গ্রামে স্ত্রীকে জখমের ঘটনায় স্বামী আক্তারুজ্জামান (৩৫) কে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকালে বাড়ি হতে তাকে আটক করা হয়। আক্তারুজ্জামান বাউকোলা গ্রামের আব্দুস সামাদ সরদারের ছেলে।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একই এলাকার মাহবুবার রহমানের মেয়ে রত্না বেগম (৩০) বলেন, আনুমানিক ১২ বছর পূর্বে আক্তারুজ্জামানের সাথে আমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর আমাদের একটি ছেলে সন্তান হয়। বিবাহের পর হতে এখন পর্যন্ত সে আমার বাবার বাড়ি হতে নগদ ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকাসহ প্রায় ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার সাংসারিক জিনিসপত্র নেয়। এরপরও সে আবার ১ লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য আমাকে প্রায়ই শারীরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন শুরু করে। যৌতুকের টাকা না দেওয়ায় সে বিনা অনুমতিতে আবার বিয়ে করে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে সে যৌতুকের জন্য আমাকে মারপিট করে জখম করে। আমি অজ্ঞান হয়ে গেলে আমার বাবাপরিবারের সদস্যরা আমাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

সাতক্ষীরা থানার এসই সাইদুজ্জামান বলেন, মারপিট করে জখমের ঘটনায় বিকটিম বাদী হয়ে সাতক্ষীরা থানায় একটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় আক্তারুজ্জামানকে আটক করা হয়েছে। আজ তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

By S V

Leave a Reply

Your email address will not be published.