কালিগঞ্জ: পলাতক স্বামীকে জামিন করানোর কথা বলে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টা – Satkhira Vision

May 14, 2021, 11:07 am

সংবাদ শিরোনাম :
সাতক্ষীরা: ঈদ সামগ্রী নিয়ে অসহায়ের বাড়ি বাড়ি ছুটছেন সাঈদ হারানো টাকার ব্যাগ মালিককে ফিরিয়ে দিলেন পুলিশ সদস্য মোহায়মেনুল তালা: অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন সাংবাদিক নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা: এতিমদের সাথে ছাত্রলীগের ইফতার সাতক্ষীরা: সাপ্তাহিক সূর্যের আলোর উদ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ স্ত্রী হত্যা মামলায় সাবেক এসপি বাবুল আক্তার গ্রেফতার সাতক্ষীরা: ভুল নাম্বারে চলে যাওয়া বিকাশের টাকা উদ্ধার করলো পুলিশ শ্যামনগর: আনসার ভিডিপি সদস্যদের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা প্যাকেজ বিতরণ তালাঃ হাজরাকাটীর সেলিম গাজীর পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  কলারোয়া: ফেনসিডিলসহ মহিলা মাদক ব্যবসায়ী আটক
কালিগঞ্জ: পলাতক স্বামীকে জামিন করানোর কথা বলে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টা

কালিগঞ্জ: পলাতক স্বামীকে জামিন করানোর কথা বলে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিনিধি: পলাতক স্বামীকে মামলা থেকে জামিন করানোর কথা বলে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রওশান আলীর বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় ভিকটিম কালিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

অভিযুক্ত রওশন আলী(৫০) কৃষ্ণনগর গ্রামের মৃত জিয়াদ আলী কাগুচীর ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া গ্রামের কেরামত আলী অন্য একটি ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় পলাতক রয়েছেন। কেরামত আলীকে মামলা থেকে জামিন করানোর আশ্বাস দিয়ে রওশন আলী কেরামত আলীর বাড়িতে যেতেন। ওই সুযোগে রওশন আলী কেরামত আলীর স্ত্রীকে কু-প্রস্তাব দেন। কিন্তু তার প্রস্তাবে রাজি হননি কেরামত আলীর স্ত্রী। গত বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে কেরামত আলীর বাড়িতে যান রওশন আলী। ওই সময় কেউ বাড়িতে না থাকার সুযোগে রওশান আলী ঘরের মধ্য প্রবেশ করে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। ওই সময় গৃহবধূর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে রওশন আলী ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়।

কালিগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান বলেন, ওই ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে রওশন আলী বলেন, আমি আসন্ন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী। এজন্য আমার প্রতিপক্ষ আমার চাচাতো ভাইয়ের মেয়ে সাফিয়া পারভীন সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য ওই মিথ্যা নাটক সাজিয়েছে। কেরামত আলী সাফিয়া পারভীনের মোটর সাইকেলের ড্রাইভার ছিলেন।

এদিকে কৃষ্ণনগর ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সাফিয়া পারভীন বলেন, ঘটনা ঘটার পর এলাকাবাসী আমাকে জানিয়েছেন। উনি যে কথাগুলো বলেছেন সেগুলো সব মিথ্যা। উনি জনপ্রিয়তায় একেবারে তলানিতে। আরো অনেক প্রার্থী আছেন। যাদের জনপ্রিয়তা আছে তাদের বিরুদ্ধে ওটা না করে উনার বিরুদ্ধে কেন করবো? আমি উনাকে কখনও প্রতিপক্ষ ভাবিনা।

কেরামত আলী তার ড্রাইভার ছিলেন জানিয়ে তিনি আরো বলেন, আমি অনেকের মটর সাইকেলে চলাচল করি। যাকে আমার বিশ্বাসযোগ্য মনে হয় আমি তার মটরসাইকেলে চলাফেরা করি।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT