কালিগঞ্জ: মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে হাফেজ শিক্ষক গ্রেপ্তার – Satkhira Vision

May 14, 2021, 11:10 am

সংবাদ শিরোনাম :
সাতক্ষীরা: ঈদ সামগ্রী নিয়ে অসহায়ের বাড়ি বাড়ি ছুটছেন সাঈদ হারানো টাকার ব্যাগ মালিককে ফিরিয়ে দিলেন পুলিশ সদস্য মোহায়মেনুল তালা: অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন সাংবাদিক নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা: এতিমদের সাথে ছাত্রলীগের ইফতার সাতক্ষীরা: সাপ্তাহিক সূর্যের আলোর উদ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ স্ত্রী হত্যা মামলায় সাবেক এসপি বাবুল আক্তার গ্রেফতার সাতক্ষীরা: ভুল নাম্বারে চলে যাওয়া বিকাশের টাকা উদ্ধার করলো পুলিশ শ্যামনগর: আনসার ভিডিপি সদস্যদের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা প্যাকেজ বিতরণ তালাঃ হাজরাকাটীর সেলিম গাজীর পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  কলারোয়া: ফেনসিডিলসহ মহিলা মাদক ব্যবসায়ী আটক
কালিগঞ্জ: মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে হাফেজ শিক্ষক গ্রেপ্তার

কালিগঞ্জ: মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে হাফেজ শিক্ষক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক হাফেজ শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার(২০ এপ্রিল) রাতে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার পাউখালি মাহবুবা রাজ্জাকিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিম খানা হতে ওই হাফেজ শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়।

হাফেজ আব্দুল মজিদ (৪২) শ্যামনগর উপজেলার শ্রীফলকাটি গ্রামের শওকত গাজীর ছেলে।

কালিগঞ্জ থানার এসআই ছেলিম রেজা বলেন, হাফেজ আব্দুল মজিদ শ্যামনগর উপজেলার নুরনগর মহিলা মাদ্রাসার দশম শ্রেণির ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ১৭ এপ্রিল বিকালে পাউখালি মাহবুবা রাজ্জাকিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিম খানায় নিয়ে আসে এবং রাত ৯ টার দিকে ওই তাকে শিক্ষকের শয়ন কক্ষে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরদিন ১৮ এপ্রিল সকালে ওই ছাত্রীকে মাদ্রাসা থেকে বের করে মোটরসাইকেল যোগে কালিগঞ্জের গড়ের হাট নামকস্থানে নামিয়ে দেয়। এরপর তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান ওই শিক্ষক।
ওই ঘটনা জানতে পেরে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

কলিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হুসেন বলেন, ওই ছাত্রীর বাবার দায়ের করা মামলায় কর্মস্থল থেকে ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
আসামিকে বুধবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT