Spread the love

এসভি ডেস্ক: সাতক্ষীরায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের একটি মামলায় এক বছর সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে ৫ শর্তে কারাগারে না পাঠিয়ে বাড়িতে প্রবেশনে পাঠিয়ে সংশোধনের সুযোগ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে সাতক্ষীরা জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতের বিচারক ইয়াসমিন নাহার যুগান্তকারী এ আদেশ দেন।

প্রবেশনে যাওয়া সাজাপ্রাপ্ত আসামি হাসান আলী সরদার (২৫) সাতক্ষীরা সদরের কুুুুুুশখালী ইউনিয়নের ভাদড়া গ্রামের রজব আলী সরদারের ছেলে।

যে ৫ শর্তে হাসান সরদারকে প্রেবেশন দেওয়া হয়েছে সেগুলো হলো- কোনরুপ মাদক বা নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবন করবে না, কোন খারাপ সঙ্গীর সাথে মিশবে না, প্রবেশনকালীন সময়ে ১০টি গাছ রোপন করতে হবে, পিতা-মাতার সেবা করতে হবে, সপ্তাহে কমপক্ষে একদিন মাদকের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাতে হবে।

ওই মামলায় আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাড. এ.টি.এম ফখরুল আলম এবং রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাড. শামছুল বারী।

আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাড. এ.টি.এম ফখরুল আলম জানান, মঙ্গলবার জি আর ৪৩/১৫ (টিআর ২৯/১৬) নম্বর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলার রায়ে আসামি হাসান আলী সরদারকে ৫ শর্তে এক বছরের প্রবেশন দেয়া হয়েছে। শর্তগুলো ভঙ্গ করলে তাকে আবারও কারাগারে যেতে হবে বলে আদেশ দেন আদালত।

আসামি পক্ষের আইনজীবী আরো বলেন, সাতক্ষীরার আদালতের এটি একটি উল্লেখযোগ্য আদেশ। সাজাপ্রাপ্ত আসামি শর্তগুলো মানছে কি-না তা তদারকি করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে সাতক্ষীরা সমাজসেবা অফিসের প্রবেশনাল অফিসারকে। তিন মাস পর পর সমাজসেবা প্রবেশনাল অফিসারকে আদালতে এবিষয়ে রিপোর্ট জমা দেয়ার আদেশও দেয়া হয়েছে আলোচিত এই রায়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *