রায়হান হত্যায় পুলিশ কনস্টেবল হারুন গ্রেফতার – Satkhira Vision

November 25, 2020, 5:07 am

সংবাদ শিরোনাম :
ভালোবাসা মঞ্চের সম্মাননা স্মারক পেলো ‘স্বর্ণ কিশোরী নের্টওয়াক ফাউন্ডেশন’ সাতক্ষীরা: প্রতিবন্ধীর স্বপ্ন পূরণে সারথি হলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বাবু সাতক্ষীরা: তারেক রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে ছাত্রদলের দোয়া কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিল সাতক্ষীরা ল স্টুডেন্টস্ ফোরাম প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ কেন্দ্রীয় শ্রমিকলীগ সভাপতির মৃত্যুতে বিবিসির শোক দেবহাটা: আ.লীগ নেতা রায়হান হত্যার ৭ বছরেও অধঁরা খুনীরা দেবহাটা: কুলিয়া ইউনিয়ন তাঁতী লীগের আহবায়ক কমিটি গঠিত সাতক্ষীরা: কবিরাজ দাদুর কান্ড! অবশেষে শ্রীঘরে! সাতক্ষীরা: ভারতীয় পাতার বিড়িসহ কাকডাঙ্গার মোফাখখের ও উজ্জল গ্রেফতার
রায়হান হত্যায় পুলিশ কনস্টেবল হারুন গ্রেফতার

রায়হান হত্যায় পুলিশ কনস্টেবল হারুন গ্রেফতার

এসভি ডেস্ক: সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশি নির্যাতনে রায়হান আহমদ হত্যার ঘটনায় হারুন-অর-রশিদ নামে আরও এক পুলিশ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এ নিয়ে চাঞ্চল্যকর এই মামলায় এখন পর্যন্ত দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হলো। তবে মামলার প্রধান অভিযুক্ত বন্দরবাজার ফাঁড়ি ইনচার্জ আকবর হোসেন ভুইয়া এখনো পলাতক রয়েছেন।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) সকালে সিলেট পুলিশ লাইন্স থেকে কনস্টেবল হারুনকে গ্রেফতার দেখানো হয় বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই’র পরিদর্শক মাহিদুল ইসলাম। 

তিনি জানান, গতকাল বিকালে আদালতে তুলে হারুনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চাওয়া হবে।

এর আগে, একই অভিযোগে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির আরেক পুলিশ সদস্য টিটু চন্দ্র দাশকে গ্রেফতার করেছিল পিবিআই। পরে তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়।

গত ১১ অক্টোবর ভোরে সিলেট নগরীর আখালিয়ার এলাকার বাসিন্দা রায়হান আহমদকে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে এনে নির্যাতন করা হয়। পরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

এই ঘটনায় নিহত রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নী বাদী হয়ে ১২ অক্টোবর কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

পুলিশের পক্ষ থেকে গঠিত তদন্ত কমিটি রায়হানকে ফাঁড়িতে এনে নির্যাতনের প্রাথমিক প্রমাণ পায় কমিটি। কমিটির সুপারিশে বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূইয়া, কনস্টেবল হারুন অর রশিদ, তৌহিদ মিয়া ও টিটু চন্দ্র দাশকে সাময়িক বরখাস্ত এবং এএসআই আশেক এলাহী, এএসআই কুতুব আলী ও কনস্টেবল সজিব হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT