নিজস্ব প্রতিনিধি: করোনায় আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া এ্যাডভোকেট আনারুল করিমের (৭৪) দাফন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার (২৮শে আগস্ট) দুপুরে সাতক্ষীরা জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আয়শা ছিদ্দিকা ও তার স্বামীর নেতৃত্বাধীন সেচ্ছাসেবক টিম নিহতের নিজ এলাকা যশোরের মণিরামপুর উপজেলায় যেয়ে ধর্মীয় রীতিনীতি ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে মরহুমের দাফন কাজ সম্পন্ন করেন।

করোনায় মারা যাওয়া আনারুল করিম মনিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক আইন-বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলার পাড়ালী গ্রামের মৃত ফজলুল করিমের ছেলে।

এবিষয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ রফিকুল ইসলাম জানান, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে গত ২২ আগস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে ভর্তি হন যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলা সদরের আনারুল ইসলাম। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার (২৮শে আগস্ট) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে তিনি মারা যান।

এবিষয়ে নিহতের ছেলে সাহেদুজ্জামান বলেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার পিতা মারা যাওয়ায় লাশ দাফন করতে সমস্যায় পড়ে যান তারা। বিষয়টি সাতক্ষীরা সিভিল সার্জনকে অবগত করলে সাতক্ষীরা সেচ্ছাসেবকলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আয়শা সিদ্দিকার নেতৃৃত্বাধীন সেচ্ছাসেবক টিম এসে তার পিতার দাফন সম্পন্ন করেন বলে জানান তিনি। এসময় তিনি সাতক্ষীরা সিভিল সার্জনসহ আয়শা ছিদ্দিকার নেতৃৃত্বাধীন টিমের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এবিষয়ে আয়শা ছিদ্দিকার স্বামী আবছার উদ্দীন বলেন, সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ও জেলা প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের লাশ দাফন ও সৎকার করে যাচ্ছেন তারা। পরবর্তীতেও এসকল কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

By G.M Jakir Hossain

News Editor Satkhira Vision

Leave a Reply

Your email address will not be published.