সাতক্ষীরা: উপকূলীয় এলাকায় স্থায়ী বেড়ীবাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন – Satkhira Vision

April 14, 2021, 8:30 am

সংবাদ শিরোনাম :
শ্যামনগর: প্রেমের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হিন্দু বাড়িতে হামলা! ঘর ও মন্দির ভাঙচুর সবাই সর্তক থাকলেই করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব: নজরুল ইসলাম দেবহাটা: মানুষের সাথে মৌমাছির বসবাস শ্যামনগর: ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হল বাল্যবিবাহ শ্যামনগর: উপকূলের ক্ষতিগ্রস্থ মানুষকে ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা প্রদান কলারোয়া: সেবার দাফন টিমের সদস্যদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সাতক্ষীরা: বন্ধুকে জবাই করে নিজের বাবাকে জানায় খুনি সাগর! সাতক্ষীরা: গাঁজা ক্রয়ের ২০০ টাকার জন্য বন্ধুকে জবাই করে খুন করে সাগর দেবহাটা: দূর্ঘটনায় নিহতের পরিবারের পাশে আওয়ামী লীগ নেতা বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গেমস-এ রৌপ্য পদক জয়ী দেবহাটার ইয়াছিন
সাতক্ষীরা: উপকূলীয় এলাকায় স্থায়ী বেড়ীবাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন

সাতক্ষীরা: উপকূলীয় এলাকায় স্থায়ী বেড়ীবাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন

এসভি ডেস্ক: সাতক্ষীরার আশাশুনি ও শ্যামনগরসহ উপকূলীয় এলাকায় স্থায়ী বেড়ীবাঁধ নির্মাণ ও সাতক্ষীরা শহরের জলাবদ্ধতার নিরসনের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় সাতক্ষীরা নিউ মাকের্ট চত্বরে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন প্রথম আলো বন্ধুসভা, সাতক্ষীরার সভাপতি জাহিদা জাহান মৌ।

প্রথম আলো বন্ধুসভা, সাতক্ষীরার আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিনিধি কল্যাণ ব্যানার্জি, এটিএন বাংলার নিজস্ব প্রতিনিধি এম. কামরুজ্জামান, হাফিজুর রহমান মাসুম, এম. বেলাল হোসাইন, রবিউল ইসলাম, রাশিদুল ইসলাম, গোলাম হোসেন, রাহাদ খান বাপ্পা, ফাহাদ বিন, পল্লবী সরকার প্রমুখ।

সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রথম আলো বন্ধু সভা, সাতক্ষীরার সহ-সভাপতি মো: হোসেন।

এসময় বক্তারা বলেন, আম্পানের ৩ মাস অতিবাহিত হলেও এখনো পর্যন্ত উকূলীয় এলাকার ভেঙে যাওয়ার বেড়ীবাধ গুলো নির্মাণ করা সম্ভব হয়নি। ৬০ এর দশকের পর থেকে উপকূলের জরাজীর্ণ বেড়িবাঁধ গুলোতে শুধু মাটি দিয়ে সংস্কার করা হয়েছে। যে কারণে দূর্যোগ হলেই উপকূলীয় এলাকার মানুষের আর দুঃখ কষ্টের শেষ থাকে না।

আম্পানে ভেঙে যাওয়ার কারণে আশাশুনির প্রতাপনগর, শ্রীউলা, আনুলিয়া, শ্যামনগরের গাবুরা, পদ্মপুকুর ও কাশিমাড়ী ইউনিয়নের মানুষ প্রায় ৩ মাস পানিবন্দি ছিলো। সম্প্রতি কয়েকদিনের টানা বর্ষণে আরো কয়েকটি স্থান ভেঙে প্রতাপনগর শ্রীউলাসহ বিভিন্ন এলাকায় প্লাবিত হয়। প্রতাপনগরের এক টুকরো শুখনা মাটি নেই। মানুষ মারা গেলে তাদের দাফনও করতে পারছে না। এই দূর্ভোগের মূল কারণ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের লুটপাট।

এসব বাধের জন্য কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ হলেও উপকূলে টেকসই বাধ নির্মাণ না হওয়ার কারণে অবর্ণনীয় কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন সেখানকার মানুষ। আমাদের একটাই দাবি উপকূলে টেকসই বেড়িবাধ। এই অবর্ণনীয় দু:খ কষ্টের হাত উপকূলের মানুষকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT