লঞ্চডুবির ১৩ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার – Satkhira Vision

April 15, 2021, 3:02 am

সংবাদ শিরোনাম :
প্রেমের ফাঁদে ফেলে শারীরিক সম্পর্ক! কলেজ শিক্ষার্থীর মামলায় যুবক গ্রেপ্তার শ্যামনগর: বাঘের আক্রমণে লাশ হয়ে ফিরলেন হাবিবুর! শ্যামনগর: প্রেমের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হিন্দু বাড়িতে হামলা! ঘর ও মন্দির ভাঙচুর সবাই সর্তক থাকলেই করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব: নজরুল ইসলাম দেবহাটা: মানুষের সাথে মৌমাছির বসবাস শ্যামনগর: ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হল বাল্যবিবাহ শ্যামনগর: উপকূলের ক্ষতিগ্রস্থ মানুষকে ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা প্রদান কলারোয়া: সেবার দাফন টিমের সদস্যদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সাতক্ষীরা: বন্ধুকে জবাই করে নিজের বাবাকে জানায় খুনি সাগর! সাতক্ষীরা: গাঁজা ক্রয়ের ২০০ টাকার জন্য বন্ধুকে জবাই করে খুন করে সাগর
লঞ্চডুবির ১৩ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

লঞ্চডুবির ১৩ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

এসভি ডেস্ক: বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির ঘটনায় একজনকে ১৩ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। তার নাম সুমন (৩২)। ফায়ার সার্ভিস কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার শাহাদৎ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, লঞ্চ ডুবির ১৩ ঘণ্টা রাত ১০টায় একজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তাই আপাতত নাম ঠিকানা কিছুই জানা সম্ভব হয়নি।

জানা যায়, ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধারে এখনও উদ্ধারকর্মীরা তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। ইয়ার লিফটিং প্রক্রিয়ায় লঞ্চ উপরের দিকে উঠানোর চেষ্টা করছিল ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। তখনই লঞ্চের নিচ থেকে এই ব্যক্তিটি ভেসে উঠেন। জীবিত থাকলেও তিনি এখন পর্যন্ত কথা বলতে পারছেন না। তাই নাম ঠিকানা জানা সম্ভব হয়নি। মিটফোর্ড স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের ক্যাজুয়ালিটি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে তাকে।

এর আগে সোমবার (২৯ জুন) সকাল নয়টার দিকে এমএল মর্নিং বার্ড নামের লঞ্চটি মুন্সিগঞ্জের কাঠপট্টি এলাকা থেকে সদরঘাটের উদ্দেশে রওনা হয়। ময়ূর–২ নামের আরেকটি লঞ্চ সদরঘাট লালপট্টি থেকে চাঁদপুরের দিকে যাচ্ছিল। ওই লঞ্চটি মর্নিং বার্ডকে ধাক্কা দেয়। সদরঘাটের কাছেই ফরাশগঞ্জ ঘাট এলাকায় নদীতে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। এখন পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস ও কোস্টগার্ড। উদ্ধার ৩২ জনের মধ্যে ৩০ জনের নাম পরিচয় পাওয়া গেছে। রাজধানীর পুরান ঢাকায় অবস্থিত মিটফোর্ড হাসপাতাল থেকে ময়নাতদন্ত ছাড়াই এই মরদেহগুলো স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT