কমিউনিটির উদ্যোগে শিশু কেন্দ্র চলমান রাখতে সাতক্ষীরায় সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত – Satkhira Vision

April 14, 2021, 7:35 am

সংবাদ শিরোনাম :
শ্যামনগর: প্রেমের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হিন্দু বাড়িতে হামলা! ঘর ও মন্দির ভাঙচুর সবাই সর্তক থাকলেই করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব: নজরুল ইসলাম দেবহাটা: মানুষের সাথে মৌমাছির বসবাস শ্যামনগর: ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হল বাল্যবিবাহ শ্যামনগর: উপকূলের ক্ষতিগ্রস্থ মানুষকে ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা প্রদান কলারোয়া: সেবার দাফন টিমের সদস্যদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সাতক্ষীরা: বন্ধুকে জবাই করে নিজের বাবাকে জানায় খুনি সাগর! সাতক্ষীরা: গাঁজা ক্রয়ের ২০০ টাকার জন্য বন্ধুকে জবাই করে খুন করে সাগর দেবহাটা: দূর্ঘটনায় নিহতের পরিবারের পাশে আওয়ামী লীগ নেতা বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গেমস-এ রৌপ্য পদক জয়ী দেবহাটার ইয়াছিন
কমিউনিটির উদ্যোগে শিশু কেন্দ্র চলমান রাখতে সাতক্ষীরায় সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

কমিউনিটির উদ্যোগে শিশু কেন্দ্র চলমান রাখতে সাতক্ষীরায় সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

এস এম আবু রায়হান: সাতক্ষীরায় কমিউনিটির উদ্যোগে শিশুর লেখা পড়া, সুরক্ষা ও খেলাধুলার অধিকার নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বিভিন্ন সোস্যালাইজেশন সেন্টার।

কমিউনিটির উদ্যোগে সোস্যালাইজেশন সেন্টার গুলো চলমান রাখতে আগ্রহী স্থানীয় দাতা সদস্যদের সাথে সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স’র আয়োজনে ও সেভ দ্য চিলড্রেন’র সহযোগিতায় মঙ্গলবার দিনব্যাপী সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘গুড কজ ক্যাম্পেইন’ (জিসিসি) প্রকল্পের আওতায় উক্ত সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স’র সাতক্ষীরা অফিসের ডেপুটি ম্যানেজার ও অফিস ইনচার্জ মো. শরিফুল ইসলাম।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো. হুসাইন শওকত। প্রধান অতিথি বলেন, প্রতিটি শিশুকে সমান ভাবে ভালবাসুন। কোন শিশু যাতে ঝুঁকিপূর্ণ শিশু শ্রম ও অপরাধ মূলক কাজে জড়িয়ে না পড়ে সেজন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি শিশুদের খেলাধুলার সুযোগ দিন। আপনারা যারা স্বেচ্ছায় স্ব-উদ্যোগে এটাকে চলমান রাখতে ভূমিকা রাখছেন, আপনাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। নিজেদের নয়, শিশুদের স্বার্থেই এটি ধরে রাখতে পারলে আমাদের শিশুরাই উপকৃত হবে। জিসিসি প্রকল্পের মেয়াদ শেষে এটাকে কমিউনিটির উদ্যোগে চলমান রাখতে যে পরিকল্পনা সম্মিলিত ভাবে করা হয়েছে তা নিঃসন্দেহে প্রসংশার দাবিদার।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাশিষ চৌধুরী, বৈকারি ইউপি চেয়ারম্যান মো. আছাদুজ্জামান অছলে, জিসিসি প্রকল্পের প্রোগ্রাম অফিসার মো. আব্দুল হক পাটোয়ারি, আব্দুল আলিম প্রমুখ।

উল্লেখ্য শিশু সুরক্ষা, শিক্ষা ও খেলাধুলার মাধ্যমে অনিরাপদ স্থানান্তর প্রতিরোধে প্রকল্পটি ২০১৭ সাল থেকে সদরের কুশখালী, ঝাউডাঙ্গা, বৈকারী, ফিংড়ি ও ভোমরা ইউনিয়নে প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হবে। প্রকল্পের মেয়াদ শেষে এটিকে চলমান রাখতে এসব কর্মএলাকার স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিশু সুরক্ষা কমিটির নেতৃবৃন্দ, সিএমসি সদস্যবৃন্দের মাধ্যমে স্বেচ্ছায় আগ্রহী স্থানীয় দাতাদের চুড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে।

স্থানীয় দাতা সদস্যদের সহযোগিতায় এটি ২০২১ সাল পর্যন্ত অব্যাহত রাখতে প্রতিটি ইউনিয়নে সিএমসি, ইউনিয়ন পরিষদ ও ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স’র সাথে ত্রৈপাক্ষিক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর ও উপকরণ হস্তান্তর সম্পন্ন করা হয়েছে।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT