দুই শিশু সন্তানকে রেখে কুশখালীতে পাতানো ভাইয়ের সাথে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী – Satkhira Vision

March 9, 2021, 1:46 am

সংবাদ শিরোনাম :
অসুস্থ্য আ’লীগ নেতাকে দেখতে গেলেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান বাবু তালা: বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন এনইউবিটি খুলনাতে ৭মার্চ উপলক্ষ্যে আলোচনা সাতক্ষীরা: পাথরের ভেতর ইটের ‘খোয়া’ হাতেনাতে ধরলেন ইঞ্জিনিয়ার(ভিডিও).. তালা: মাটি কাটতেই বেরিয়ে এলো ৪০০ বছরের পুরাতন স্বর্ণ স্বাদৃশ্য মূর্তি সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব নির্বাচনে বাপী-হাবিব-সুজন প্যানেলের ১৩টি পদের মধ্যে ১২টিতে জয় জিমের পাশে “মানবতার সিঁড়ি” সাতক্ষীরার চোরাই গরু ডুমুরিয়ায় উদ্ধার: ২ চোর আটক কলারোয়া: আ’লীগ নেতার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে দলীয় প্যাডে স্বাক্ষর নিলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলায় কমেছে আম চাষ! আবহাওয়া, বাজার ধর নিয়ে চিন্তিত আম চাষীরা
দুই শিশু সন্তানকে রেখে কুশখালীতে পাতানো ভাইয়ের সাথে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী

দুই শিশু সন্তানকে রেখে কুশখালীতে পাতানো ভাইয়ের সাথে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী

মিজানুর রহমান: দুই শিশু সন্তানকে রেখে সাতক্ষীরার কুশখালী ইউনিয়নের বাউকোলায় পাতানো ভাইয়ের সাথে পালিয়েছে এক প্রবাসীর স্ত্রী।

এ সময় সে নিয়ে গেছে স্বামীর কষ্টের্জিত ২ লক্ষ টাকা ও দের লক্ষ টাকার স্বর্ণালংকার।

সাতক্ষীরা সদরের বাউকোলা গ্রামের নুরুল আমীনের ছেলে আব্দুল আলীম মালেশিয়ায় অবস্থান করায় প্রতিকার চেয়ে সাতক্ষীরা থানায় অভিযোগ দিয়েছে প্রবাসীর বড় ভাই ফারুক হোসেন।

ফারুক হোসেন বলেন, আমার ভাই আব্দুল আলীম ৪ বছর আগে বিদেশে যায়। বিদেশে যাওয়ার পর হতে আমার ভাইয়ের বউ ও পাটকেলঘাটার পুটিয়াখালী গ্রামের হারুন অর রশিদের মেয়ে নাসরিন নাহার(২৬) বেপরোয়া চলাচল করতে থাকে। কারনে অকারনে সে আমাদের সংসারে অশান্তির সৃষ্টি করতে থাকে। গত ৬ মাস আগে স্থানীয় সোইল উদ্দীন সরদারের ছেলে নমিছুরের সাথে ভাই পাতিয়ে তাদের বাড়িতে যাতায়াত করতে থাকে। নমিছুর ও মাঝে মাঝে আমাদের বাড়িতে আসতে থাকে। এরই মধ্যে নাসরিন নাহার নমিছুরের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে তবে আমরা সেটা বুঝতে পারিনি। 

হঠাৎ গত ১৬ সেপ্টেম্বর নাসরিন নাহার দুই শিশু সন্তানকে রেখে উধাও হয়ে যায়। আমরা অনেক খোঁজাখুজির পর জানতে পারি নমিছুরের বাবা, মা, ও ভাইদের সহোগিতায় নাসরিন নাহার নমিছুরের সাথে পালিয়েছে। 

এরপর আরো জানতে পারি যে, নাসরিন নাহার নমিছুরের সাথে পালিয়ে যাওয়ার সময় আমার ভাইয়ের কষ্টোর্জিত ২ লক্ষ টাকা ও দের লক্ষ টাকার স্বর্ণালংকার নিয়ে নিয়ে গেছে। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইফুদ্দীন পলাশ বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। 

এ দিকে স্থানীয়রা জানান, নমিছুর একজন লম্পট প্রকৃতির ছেলে। সে এলাকার অনেক মেয়ের জীবন নষ্ট করেছে। তার এ সকল অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বলার কারণে এক শিশু বাচ্চাসহ স্ত্রীকে তালাক দিয়েছে। বাচ্চা নিয়ে মেয়েটি এখন অসহায়ের মত জীবন যাপন করছে। লম্পট নমিছুরের কারণে আবার একটি সোনার সংসার ধ্বংস হয়ে গেল।

সাতক্ষীরা থানার এএসআই সুভাস বলেন, এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT