*/
‘এরা কেউ ছেলে ধরা না’

‘এরা কেউ ছেলে ধরা না’

মৌ হাসান, তালা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা জেলা  তালা উপজেলা ছেলে ধরা গুজব বিরাজ করছে। ছেলে ধরার আতঙ্কে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে স্থানীয়রা। কয়েকজনকে ছেলে ধরা হিসেবে সন্দেহ করে ধনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনগণ। তবে  বিষয়টি গুজব বলে প্রমাণিত হয়েছে। কোন কুচক্রি মহল ছেলে ধরা গুজব ছড়িয়ে ফায়দা হাসিল করতে চাচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ছেলে ধরা গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থার হুশিয়ারি করেছে পুলিশ।

জানাযায়, উপজেলার ঘোষনগর নামক খেয়াঘাট স্থান থেকে ১ জন, নাংলা নতুন বাজার হতে ১ জন,তালা ব্রীজ মোড় হইতে ১ জন সহ বিভিন্ন স্থানে থেকে  সন্দেহ ভাজন হিসাবে জনগণ আটক করে  মারধরও করে। এসময় এগিয়ে যান কিছু সচেতন মানুষ। আটক ৩-৫‘জনের পরিচয় নিতে গিয়ে দেখা যায় তারা বিকৃত ভাষায় কথা বলতে শুরো  করে । পরে পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। কারা গুজব ছড়িয়ে তা খুঁজতে মাঠে নেমেছে পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে রোহিঙ্গারা এই এলাকায়  সে কাজের সন্ধানে ঘোরা ঘুরি করছে ।

তালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেহেদী রাসেল জানান, ৩-৫’জন যদি ছেলে ধরা হিসেবে গণপিটুনিতে মারা যেতেন তাহলে দায়ভার কে নিতো। তাই গ্রামের মানুষ যদি এসব বিষয়ে সতর্ক না হয় তাহলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এরা কেউ ছেলে ধরা না ,আমরা প্রতি নিয়ত মাইাকিং করছি জনগকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য । যদি তাদের বিরুদ্ধে অকাট্য প্রমাণ পাই যে তারা ছেলে ধরা তাহলে অবশ্যই আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব । গুজবের বিষয়ে তিনি বলেন, এখনো পর্যন্ত কোন স্থান থেকে ছেলে ধরার সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগ কিংবা তথ্য আসেনি। শুধুমাত্র সন্দেহ ও অনুমানের ভিত্তিতে এসব গুজবে কান দিচ্ছে স্থানীয়রা।

এদিকে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের ফেসবুক পেজে এ ব্যাপারে সকলকে সতর্ক থাকার আহবান জানিয়ে বলা হয়েছে ‘সাতক্ষীরা জেলায়  বাচ্চা ধরা যে মিথ্যা গুজব স্যোসাল মিডিয়ায় প্রকাশ করা হচ্ছে এর  বস্তু নিষ্ঠ  কোন তথ্য নেই। সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় আছে গুজুবে কান দেবেন না।’

Please Share This Post in Your Social Media


Deprecated: File Theme without comments.php is deprecated since version 3.0.0 with no alternative available. Please include a comments.php template in your theme. in /home/comsatkhira/public_html/wp-includes/functions.php on line 5580

Comments are closed.




© সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ Satkhiravision.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/comsatkhira/public_html/wp-includes/functions.php on line 5275