Spread the love

বিশেষ প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার নারকেলতলায় জেলা ট্রাক, ট্যাংকলড়ী ট্রাক্টর, কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয়ের সামনে শ্রমিকদের দুগ্রুপের সংঘর্ষে ৬ জন আহত হয়েছে। আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল রাত ৮ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

হামলায় আহতরা হলেন, সাতক্ষীরা জেলা ট্রাক, ট্যাংকলড়ী ট্রাক্টর, কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের অফিস সহকারী আশরাফ আলী, কার্যকরী সদস্য আব্দুর রাজ্জাক, আবু সিদ্দিক, শ্রমিক লেলিন ও সেলিম। এছাড়া সাতক্ষীরা জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ, মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিক আতাকুর রহমান।

সাতক্ষীরা জেলা ট্রাক, ট্যাংকলড়ী ট্রাক্টর, কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সড়ক সম্পাদক কবিরুল ইসলাম বলেন, চুকনগরে বাসভাড়াকে কেন্দ্র করে সাতক্ষীরা জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ, মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের এক শ্রমিক আমাদের শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্য আলাউদ্দীনকে মারপিট করে। বিষয়টি জানার পর দুজনকে ডেকে আমরা দুইজনের মধ্যে বিরোধ নিষ্পত্তির চেষ্টা করি।

তবে বিষয়টি তারা নিষ্পত্তি না করে রাত ৮ টার দিকে সাতক্ষীরা জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ, মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শেখ জাহিদ হাসানের নেতৃত্বে আক্তার, মিলনসহ ৫০ থেকে ৬০ জন সন্ত্রাসী আমাদের অফিসে এসে হামলা করে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। আমাদের শ্রমিক ইউনিয়নের ৫ জনকে মারাত্মকভাবে পিটিয়ে জখম করেছে তারা। আহতদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহতদেরকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন এখানে

সাতক্ষীরা জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ, মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শেখ জাহিদ হাসান বলেন, আমাদের শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিক আতাকুর কাঁদতে কাঁদতে এসে আমাকে বলে ভাই আমরা আপনাদের সাথে থাকি আর আজ আমাকে দেখেন তারা কিভাবে মারপিট করেছে। তার কথা শুনে আমি নারকেলতলা শ্রমিক ইউনিয়নে যেয়ে বিষয়টি জানতে চাওয়া মাত্র ওই শ্রমিক সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন আমার সামনে আতাকুরকে গালিগালাজ করতে শুরু করে। এরপর আমি গালিগালাজ না করার জন্য জাকির হোসেনকে অনুরোধ করলে জাকির আমার উপর তেড়ে এসে হামলা করে।

আমাকে সে ব্যাপক মারপিট করেছে। আমার জামা কাপড় চিড়ে ফেলেছে। এরপর বিষয়টি জানতে পেরে আমার শ্রমিক সংগঠনের কিছু শ্রমিক নারকেল তলায় গেলে দুপক্ষের মধ্যে সামান্য হাতাহাতি হয়।