আশাশুনিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় গৃহবধূ আহত – Satkhira Vision

March 4, 2021, 4:21 pm

সংবাদ শিরোনাম :
সাতক্ষীরা: খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করলো বৃদ্ধ জেলায় কমেছে আম চাষ! আবহাওয়া, বাজার ধর নিয়ে চিন্তিত আম চাষীরা সাতক্ষীরা: ৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ কাথন্ডার মাকফুর গ্রেফতার সাতক্ষীরা: করোনার টিকা নিলেন পিপি আব্দুল লতিফ সাতক্ষীরা: মাহিন্দ্রা চালকদের উপর বাস শ্রমিকদের হামলা, আহত ৮ কলারোয়া: ৯৯ বোতল ফেনসিডিলসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কলারোয়া: জাতীয় ভোটার দিবস পালিত  কলারোয়া: ৩টি দোকানসহ একটি বাড়িতে অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি শ্যামনগর: এবার কালভার্ট এর উপর পরিত্যাক্ত ব্যাগে মিললো জীবন্ত নবজাতক সাতক্ষীরা: বিদায়ী হাফেজদের পাগড়ি প্রদান করলো আল নূর ফাউন্ডেশন
আশাশুনিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় গৃহবধূ আহত

আশাশুনিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় গৃহবধূ আহত

আশাশুনি প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার জামালনগর গ্রামে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের গৃহবধূ আহত হয়েছেন।

শনিবার সকালে ঘুর্ণিঝড় ফণি আঘাত চলকালে এ ঘটনা ঘটে। বড়দল ইউনিয়নের জামালনগর গ্রামের শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আজিজ সানার ছেলে এস এম আছাফুদ্দৌলা একজন স্বনাম খ্যাত শান্তিপ্রিয় মানুষ। তাদের বাড়ির পাশে ধান ক্ষেত আছে।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার স্ত্রী হালিমা খাতুন (৪২) ধান ক্ষেতে যেয়ে দেখেন আঃ হাকিম সানার ছেলে মজিদ সানার গরুতে ধান খাচ্ছে।

তিনি গরুটা তাড়িয়ে পাশের তাদের (মজিদ সানা) জমিতে বের করে দেন। এসময় মজিদ সানা, তার স্ত্রী মরিয়ম ও ছেলে আহসান হাবিব তাদের গরু তাড়িয়ে দিলে কেন, প্রশ্ন নিক্ষেপ করে হালিমার উপর আক্রমন চালান। লাঠি শোটার আঘাতে ও হামলায় তিনি হাতভাঙ্গা ইঞ্জুরিসহ রক্তাক্ত জখম হন। গুরুতর আহত অবস্থায় হালিমাকে আশাশুনি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

আহতের স্বামী আছাফুদ্দৌলা জানান, গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে তার কন্যার বিয়ের দিন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মজিদ সানা ও তাদের লোকজন রাস্তায় ঘেরা দিয়ে, কুলের কাটা ছড়িয়ে এবং রাস্তায় শুইয়ে যাতয়াতের পথ বন্ধ করে বিবাহ রুখতে জোর তৎপরতা চালিয়েছিলেন।

থানায় অভিযোগ করার পর তৎকালীন পুলিশ পরিদর্শকের নির্দেশে একজন এসআই ও বড়দল ইউপি চেয়ারম্যান ঘটনাস্থানে গিয়ে পথ উন্মুক্ত করেন এবং বিবাহ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তারা সেখানে ছিলেন। বর্তমানে হামলাকারীরা দা-লাঠি নিয়ে আরও কঠিন হামলার হুংকার দিয়ে এলাকায় অবস্থান করছে বলে তিনি জানান।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT