আশাশুনি প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নে অধিক মূল্যে বিক্রয়ের লোভে তক্ষক সাপ ধরে পালিয়েছেন তিন যুবক।

কুল্যা ইউনিয়নের মাদারবাড়িয়া গ্রামের আফসার আলির পুত্র মিলন, পিতা অজ্ঞাত রিপন ও আনছার আলির পুত্র ফারুক একই গ্রামের হোসেন আলিদের খই গাছে তক্ষক সাপের বসবাস লক্ষ্য করে। এরপর তারা সাপ ক্রেতাদের সাথে যোগাযোগ করে অধিক টাকায় বিক্রয় করতে পারবে এমন আশ্বাসে সাপ ধরার জন্য চেষ্টা করে আসছিল। ২৫ মার্চ সন্ধ্যা ৭.৩০ টার দিকে তারা গোপনে টর্চ লাইট জ্বালিয়ে গাছে উঠে গাছের খোরল (গর্ত) থেকে সাপ ধরে থলেতে ভরে নেমে পড়ে।

হোসেন আলির পুত্র জিয়াউর, মৃত মোছেলের পুত্র সোহরাব, মোক্তারের স্ত্রী রিজিয়া খাতুন, মোক্তারের পুত্র আক্তারুলসহ অনেকে জানান, তারা খই গাছে টর্চ জ্বালিয়ে সাপ ধরছে অনুমান করে সেখানে গিয়ে মিলন, রিপন ও ফারুককে দেখতে পায়। পরে তাদের বাড়িতে গিয়ে জানতে গেলে তাদেরকে মারতে যায়। এরপর তারা গা ঢাকা দেয়।

সাংবাদিকরা রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পেলেও অভিযুক্তরা গা ঢাকা দেওয়ায় খুজে পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানান ইতিমধ্যে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সাপ বিক্রয় করেছে। একটি প্রভাবশালী মহল তাদেরকে রক্ষা করতে জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে স্থানীয়রা জানান।