এসভি ডেস্ক: কলারোয়ায় নৌকা ও আনারসের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ৭ জন আহত হয়েছেন।

নির্বাচনী পোষ্টার মারাকে কেন্দ্র করে শনিবার রাত ৮টার দিকে কলারোয়া পৌর এলাকার তুলশিডাঙ্গা কেন্দ্রের কাছে ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, তুলশিডাঙ্গা গ্রামের শেখ মোসলেম উদ্দীনের ছেলে কলারোয়া গার্লস পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান বিপ্লব (৪০), একই এলাকার আব্দুল আহাদের ছেলে কাজী বাবু (৩২), হামিদুর রহমানের স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন (৫০), মৃত কওসার আলীর ছেলে জাবিদ রায়হান লাকী (৩৯), মৃত সিদ্দিকের ছেলে রবিউল ইসলাম (৪০), শহিদুল ইসলামের স্ত্রী ফিরোজা খাতুন (৩০) ও মৃত সিদ্দিকের ছেলে মোজাফফর হোসেন (৩৫)।

আনারস প্রতীকের প্রার্থী আমিনুল ইসলাম লাল্টু জানান, তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে দুই পক্ষে মারামারি হয়েছে। পরে আমার সমর্থক হামিদের বাড়িতে যেয়েও নৌকার কর্মী-সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে। এতে হামিদের স্ত্রী আম্বিয়া, মোজাফফর ,শহিদুলের স্ত্রী ফিরোজাসহ তার বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

অন্যদিকে স্বপন সমর্থকরা জানান, প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি বহরে হামলা মামলার স্বাক্ষী মোসলেম কমান্ডারের ছেলে ও নৌকার প্রার্থী স্বপনের শ্যালক বিপ্লব, নাহিদ, বুলবুলসহ কয়েকজন ব্যক্তি নৌকার পক্ষে মানুষের কাছে ভোট প্রার্থনা করছিলেন। এসময় স্থানীয় জামায়াত বিএনপি নেতাকর্মী ও প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলা মামলার আসামী যাবির রাইহান লাকি, মানিক, রবিউল, লাল্টুর ছেলে আশিকসহ কয়েকজন ব্যক্তি তাদের উপর হামলা করে। এতে সে, বিপ্লব, মানিক, তুহিনসহ ৪ জন গুরুতর আহত হয়।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, দুই পক্ষে কিছুটা ঝামেলা হয়েছিল তবে এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।