ফিরোজ জোয়ার্দ্দার: কলারোয়ায় ভেজাল বিরোধী অভিযান চালিয়ে হায়হায় কোম্পানী ও নামিদামী কোম্পানীর মেয়াদ উর্ত্তীন্ন নিম্নমানের ঔষধ অনুমোদন না থাকায় তা বাজারজাত করার অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে দুই ফার্মেসীকে অর্থ দন্ড দেয়া হয়েছে। এসময় ওই দুই ফার্মেসী থেকে বিপুল পরিমাণ মেয়াদ উর্ত্তীন্ন ঔষধ জব্দ করা হয়।

মঙ্গলবার (৫ই মার্চ) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরএম সেলিম শাহনেওয়াজের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতেন একটি টিম পৌর বাজারের পশু অফিসের সামনে কবীর ফার্মেসীতে অভিযান পরিচালনাকালে হায়হায় ও নামিদামী কোম্পানীর মেয়াদ উত্তীর্ণ টেস্টি স্যালাইন দুই কাটুম, যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট পাঁচ কাটুম ও ডাইকোসিস ট্যাবলেট ৩০ প্যাকেটের মেয়াদ বা অনুমোদন না থাকায় তা বাজারজাত করে বিক্রয়ের দায়ে ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়।

এছাড়া একই সময়ে পশুহাট মোড়ে অবস্থিত বাবলু মেডিকেল হল ( ফার্মেসী) নামদামী কোম্পানীর বেটনোভিট ক্রীম বাজারজাত করণের অনুমোদন না থাকায় অবৈধভাবে বিক্রি করার অপরাধে ৩ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়। আর কোন দিন অবৈধভাবে ঔষধ ফার্মেসীতে রেখে বিক্রি করবেন না বলে উপস্থিতি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরএম সেলিম শাহনেওয়াজের সামনে ভূল স্বীকার করলে তাদের এ অর্থদন্ডে দন্ডিত করা হয়। আদালত পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন থানার এস আই পিযুষ কুমার, স্বাস্থ্য ও মেডিসিন বিভাগের কর্মকর্তা প্রমুখ।

পরে জব্দকৃত বিপুর পরিমাণ ঔষধ উপস্থিতির লোকজনের সন্মুখে আগুনে পুড়ে বিনষ্ট করা হয়েছে।