Spread the love

এসভি ডেস্ক: লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তবে আদালত কর্তৃক দণ্ডপ্রাপ্ত একজন আসামি কী করে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারে সে বিষয়টি জানতে চেয়ে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 

এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি জাতির কাছে বলতে এখন পারি, একজন দণ্ডিত পলাতক আসামি এ ধরনের বক্তব্য দিতে পারে কিনা? জাতির কাছে আমি এর বিচার চাইছি। নির্বাচন কমিশনের কাছেও দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। দুটি মামলায় দণ্ডিত পলাতক এরকম কেউ এভাবে ভিডিও কনফারেন্স করে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারে কিনা- আমি সেটি নির্বাচন কমিশনের কাছে জানতে চাইছি।’

রবিবার (১৮ নভেম্বর) সকালে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এসব কথা জানান। 

​একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ১৪ দলের চূড়ান্ত ও পূর্ণাঙ্গ মনোনয়ন তালিকা প্রকাশ করতে আরও ৪-৫ দিন লাগবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মনোনয়ন নিয়ে সবকিছুই ঠিক, এখন শুধু ফিনিসিং টাচটা বাকি আছে। আশা করছি, ৪-৫ দিনের মধ্যেই তালিকা দিতে পারবো।’

তিনি বলেন, ‘আমরা উইনেবল ও ইলেক্টেবল প্রার্থী চাই। যিনি উইনেবল ও ইলেক্টেবল প্রার্থী বলে বিবেচিত হবেন তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে। এক্ষেত্রে যদি আওয়ামী লীগের বাইরে ১৪ দলের অন্য কাউকে বেশি সম্ভাবনাময় মনে হয় তবে তাকেই আমরা মনোনয়ন দেবো। সেই প্রার্থী জাতীয় পার্টি কিংবা অন্য কোনও শরিক দলেরও হতে পারে।’