দেবহাটায় চুরি করতে এসে ধরা খেলো ধরম বাপ – Satkhira Vision

May 14, 2021, 5:35 pm

সংবাদ শিরোনাম :
সাতক্ষীরা: ঈদ সামগ্রী নিয়ে অসহায়ের বাড়ি বাড়ি ছুটছেন সাঈদ হারানো টাকার ব্যাগ মালিককে ফিরিয়ে দিলেন পুলিশ সদস্য মোহায়মেনুল তালা: অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন সাংবাদিক নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা: এতিমদের সাথে ছাত্রলীগের ইফতার সাতক্ষীরা: সাপ্তাহিক সূর্যের আলোর উদ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ স্ত্রী হত্যা মামলায় সাবেক এসপি বাবুল আক্তার গ্রেফতার সাতক্ষীরা: ভুল নাম্বারে চলে যাওয়া বিকাশের টাকা উদ্ধার করলো পুলিশ শ্যামনগর: আনসার ভিডিপি সদস্যদের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা প্যাকেজ বিতরণ তালাঃ হাজরাকাটীর সেলিম গাজীর পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  কলারোয়া: ফেনসিডিলসহ মহিলা মাদক ব্যবসায়ী আটক
দেবহাটায় চুরি করতে এসে ধরা খেলো ধরম বাপ

দেবহাটায় চুরি করতে এসে ধরা খেলো ধরম বাপ

দেবহাটা প্রতিনিধি: শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে দক্ষিণ দেবহাটার সখিপুর গ্রামের সোহারাফ হোসেনের ছেলে এবাদুল ইসলামের বাড়ি থেকে মৃত গোলাম বারী কবিরাজের ছেলে আব্দুল মালেক(৩৫)কে পালানোর সময় স্থানীয়রা ধরে ফেলে।

স্থানীয়রা জানান , সোহারাফ আলীর বাড়িতে বিভিন্ন নারীদের আনোগোনা রয়েছে । বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা নারীদের আত্মীয়ের পরিচয়ে এই অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। একাধিক বার তাদের সতর্ক করা হলেও কোন পরিবর্তন দেখা যায়নি।

ঘটনার দিন রাতে ইউপি সদস্য আকবর আলী এসে আব্দুল মালেককে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এবাদুলের স্ত্রী বকুলের সাথে তার দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক থাকায় তার ঘরে এসেছিল। কিন্তু এবাদুলের স্ত্রী ঘরের দরজা না খুললে। তার ঘরের সামনে দীর্ঘ সময় অবস্থান করায় সে ধরা খায়।

এবিষয়ে ইউপি সদস্য আকবর আলী জানান, আমাকে রাতে ফোন করে ডাকা হলে আমি এসে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার সত্যতা পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দেই।

পুলিশ আব্দুল মালেককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। তিনি আরো জানান, আমার কাছে বহুদিন ধরে অভিযোগ এসেছে যে, সোহারাফ ও এবাদুলের বাড়িতে অনৈতিক কর্মকান্ড চলছে। আমি তাদের ডেকে বিষয়টি সমাধানের জন্য বলে দিয়েছি।

এবাদুলের স্ত্রী বকুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার সাথে আব্দুল মালেকের ৭/৮ বছরের সম্পর্ক। সে আমার ধরম পিতা। অনেক আগে আমার সাথে গুজব উঠলে আমরা সম্পর্ক নষ্ট করি। তবুও সে বিভিন্ন সময় রাতে আমার বাড়িতে আসতো। সে আমার বাড়ি থেকে প্রায় বিভিন্ন জিনিস চুরি করত। শনিবার রাতে সে আমাদের বাড়িতে চুরি করতে এসেছিল। আমার ননদ জাহানারা দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে সে আমাদের বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা তাকে আটক করে। আমি কোন দোষ করিনি। আমার কোন দোষ নেই এ বিষয়ে।

সোহারাফ হোসেন জানান, আমার বাড়িতে কি হয় না হয় আমি কোন খবর রাখি না। আমার পরিবারের কেউ আমাকে মূল্য দেয় না। তবে, বাহিরের কোন নারী আমার বাড়ি আসে না। যারা আসে সবাই আমার আত্মীয়। লোক দোষ দিলে কি আর করার।

দেবহাটা থানার সেকেন্ড অফিসার ইয়ামিন আলী জানান, বাদি পক্ষ আব্দুল মালেক কে চুরির অভিযোগে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছেন। আমরা থানায় এনে তার বিরুদ্ধে চুরির বিষয়ে সত্যতা না পেয়ে রবিবার সকালে ছেড়ে দিয়েছি।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT