বিশেষ প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা সদরের রইছপুর এলাকায় নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি, যুগ্ন-সম্পাদকসহ ২১ বিএনপি ও জামায়াত নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখসহ  অজ্ঞাত আরো ৬০/৭০ জনকে আসামী করে মামলা করেছে পুলিশ। 
ইতিমধ্যে ৩ নারীসহ ৯ জনকে আটক করা হয়েছে।
শনিবার সন্ধ্যায় সাতক্ষীরা থানার এসআই প্রদীপ রায় বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেছেন।
মামলার আসামীরা হলেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও লাবসা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল আলিম, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও আলীপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ, যুগ্ন-সম্পাদক আইনুল ইসলাম নান্টা, ইটাগাছা এলাকার জামায়াত নেতা আবুল খায়ের, রইছপুর এলাকার জামায়াত নেতা আবু জাহের, তার স্ত্রী সাজেদা খাতুন, একই এলাকার আলমগীরের স্ত্রী শাফিয়া খাতুন, ওয়ারিয়া গ্রামের আলাউদ্দীনের স্ত্রী নাজমা খাতুন, আশাশুনির বাকড়া গ্রামের হাফিজুর রহমান, ঝাউডাঙ্গা এলাকার শুকতারা বিবিসহ ২১ জন।
সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) মহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নাশকতার পরিকল্পনা নিয়ে বিএনপি-জামায়াতের কিছু উচ্ছৃঙ্খল নেতাকর্মী রইছপুর এলাকায় নাশকতার জন্য জড়ো হয়েছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। এসময়  পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় সেখান তিন নারীসহ  নয় জনকে আটক করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে নাশকতার কাজে ব্যবহারের উদ্দেশ্যে আনা বাঁশের লাঠি ও জিহাদি বইসহ বিভিন্ন প্রকার সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়। এ মামলায় বাকী আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।