ড. জাফরুল্লাহ’র প্রতিষ্ঠানকে সিলগালা ও ১৫ লাখ টাকা জরিমানা – Satkhira Vision

May 15, 2021, 3:19 pm

সংবাদ শিরোনাম :
সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে মৌয়াল নিহত সাতক্ষীরা: ঈদ সামগ্রী নিয়ে অসহায়ের বাড়ি বাড়ি ছুটছেন সাঈদ হারানো টাকার ব্যাগ মালিককে ফিরিয়ে দিলেন পুলিশ সদস্য মোহায়মেনুল তালা: অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন সাংবাদিক নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা: এতিমদের সাথে ছাত্রলীগের ইফতার সাতক্ষীরা: সাপ্তাহিক সূর্যের আলোর উদ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ স্ত্রী হত্যা মামলায় সাবেক এসপি বাবুল আক্তার গ্রেফতার সাতক্ষীরা: ভুল নাম্বারে চলে যাওয়া বিকাশের টাকা উদ্ধার করলো পুলিশ শ্যামনগর: আনসার ভিডিপি সদস্যদের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা প্যাকেজ বিতরণ তালাঃ হাজরাকাটীর সেলিম গাজীর পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ 
ড. জাফরুল্লাহ’র প্রতিষ্ঠানকে সিলগালা ও ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

ড. জাফরুল্লাহ’র প্রতিষ্ঠানকে সিলগালা ও ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

এসভি ডেস্ক: র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত সাভারে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মালিকানাধীন গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালস সিলগালা করেছেন। একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটিকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। এ সময় গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও অভিযান পরিচালনা করা হয়।

মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সাভারের বাইশ মাইল এলাকায় অবস্থিত প্রতিষ্ঠান দু’টিতে এ অভিযান পরিচালনা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এই অভিযানে গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালসের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগ করা হয়। তা হলো অ্যান্টিবায়োটিক উৎপাদন শাখাটি আলাদা না হওয়া এবং সেখানকার তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ না করা। এই দুই কারণে সিলগালা করে প্রতিষ্ঠানটিকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এদিনের অভিযানে র‌্যাব হেড কোয়াটার্স, র‌্যাব-৪, সাভার উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর ও পুলিশ প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে অভিযান পরিচালিত হয়।  এতে র‌্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারোয়ার আলমকে সহযোগিতা করেন সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এবং নির্বাহী ম্যাজিস্টেট শেখ রাসেল হাসান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রণব কুমার ঘোষ। 

অভিযানে কেমিক্যালসের বোতলে মেয়াদ লেখা নেই, রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহারের কোনো রেজিস্টার নেই, মেয়াদ উত্তীর্ণ রাসায়নিক দিয়ে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ তৈরির নমুনা পাওয়া যায়। 

এদিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতি বুঝতে পেরে মান নিয়ন্ত্রণ বিভাগের কেমিস্ট শিবুতোষ মালাকার বেশকিছু রাসায়নিকের বোতলের গায়ে থাকা মেয়াদ কলম দিয়ে কেটে সময় বাড়িয়ে দেন। 

এ প্রসঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারোয়ার আলম বলেন, আমি এখানে এসে তাদের কার্যক্রম দেখে অত্যন্ত কষ্ট পেয়েছি। ছয় মাস আগে তাদের অ্যান্টিবায়োটিক শাখাটিকে আলাদা করার জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। তবে তারা তা মানেনি। 

তিনি আরও বলেন, দেশের ৯৫ শতাংশ বেসরকারি হাসপাতালে গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালসের প্যাথিডিন ব্যবহার করা হয়। অথচ এখানে ওষুধ উৎপাদনে মেয়াদহীন কাঁচামাল ব্যবহার করা হচ্ছে।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT