নিজস্ব প্রতিবেদক : ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে। দেশের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা অক্ষুন্ন রাখার স্বার্থে আসন্ন নির্বাচনটি অত্যান্ত গুরুত্বপুর্ণ। নির্বাচনকে সামনে রেখে সারাদেশের মতো নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করছে সাতক্ষীরা-০৩ আসনেও (আশাশুনি-দেবাহাটা-কালিগঞ্জ)।

গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক ধারায় নির্বাচন এলেই দৌড় ঝাপ দেখা যায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে। নির্বাচনের আগেই আঁচ পাওয়া যায় শক্তিশালী প্রার্থীদের অবস্থান সম্পর্কে। বহুধাবিভক্ত রাজনৈতিক দলগুলোতেও প্রার্থী নির্বাচনে এক ধরণের আভ্যন্তরীন লড়াই লক্ষ্য করা যায়। যার ব্যতিক্রম নয় সাতক্ষীরা-৩ আসনেও।

সাতক্ষীরা-০৩ আসনে বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন প্রাপ্তির লক্ষ্যে স্ব স্ব কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু এই আসনের সকল হিসাব উল্টে গেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ’র প্রফেসর, নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনার উপাচার্য, দেশবরেণ্য শিক্ষাবিদ ও জনপ্রিয় কলামিস্ট প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ’র মনোনয়ন প্রতাশী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করায়। তিনি আগামী নির্বাচনে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণের ঘোষণা দিয়েছেন। সেই অনুযায়ী মাঠ গোছানোর কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

ড. ইউসুফ আব্দুল্লাহ এলাকায় ক্লিনম্যান হিসেবে পরিচিত। তিনি একজন সমাজসেবক ও দানশীল ব্যক্তি। সাতক্ষীরার মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক মোঃ আনসার আলীর সন্তান তিনি। সাতক্ষীরার আবাল-বৃদ্ধ-বনিতার কাছে তিনি সাতক্ষীরার অহংকার বলে বিবেচিত। তিনি তরুণ সমাজের রোল মডেল। সাতক্ষীরার মত প্রান্তিক একটি জেলায় জন্মগ্রহণ করেও কিভাবে দেশের অন্যতম সেরা উদ্যোক্তা হওয়া যায়, মেধার স্বাক্ষর রেখে কিভাবে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়া যায় সেটা তিনি করে দেখিয়েছেন। এজন্য তিনি তরুণ প্রজন্মের ভিষণ পছন্দের। তরুণ সমাজ তাঁর প্রার্থী হওয়ার খবরে তাই ভিষণ আনন্দিত।

উন্নত ও সমৃদ্ধ আশাশুনি-দেবাহাটা-কালিগঞ্জ গড়ে তোলাই ড. ইউসুফ আব্দুল্লাহ’র স্বপ্ন। সকল-শ্রেণি-পেশার মানুষকে সাথে নিয়ে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে চান তিনি। এজন্য তিনি নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় এর মাধ্যমে উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন।
তৃণমূল আওয়ামীলীগের প্রবীণ বেশ কয়েকজন নেতা ও সমর্থকের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সাতক্ষীরা-০৩ (আশাশুনি-দেবাহাটা-কালিগঞ্জ) আসনে ড. ইউসুফ আব্দুল্লাহকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হলে এমপি নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে তারা বিশ্বাস করেন। তাদের ধারণা ড. ইউসুফ আব্দুল্লাহ নতুন, তরুণ প্রজম্ম ও সুশীল সমাজের ভোটারদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। এবং সাতক্ষীরা-০৩ আসনের প্রত্যেকটি ইউনিয়নেই ড. ইউসুফ আব্দুল্লাহ’র রয়েছে বিশাল সুশৃংখল কর্মী বাহিনী। তাছাড়া শিক্ষকনেতা হিসেবে ড. ইউসুফ আব্দুল্লাহ সাতক্ষীরা-০৩ আসনের মাটি ও মানুষের আবেগে ও ভাল লাগায় পরিনত হয়েছে।

তারা আরও জানায়, তিনি এলাকার জনগনের সেবা করার মহান ব্রত নিয়ে আগামীদিনের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন। এ মনোনয়নের মাধ্যমে তিনি সাতক্ষীরা-০৩ আসনে জনগনের রায়ে নির্বাচিত হয়ে আগামীদিনে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করাসহ এলাকার সামগ্রিক উন্নয়ন ও জনগনের জীবন মান উন্নয়নে কাজ করতে চান। তিনি এলাকার জনগনের পাশে থেকে তাদের সেবা করার মানসে এবার মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন ।

দেবাহাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, পরিপূর্ণ রাজনীতিবিদ ও গণমানুষের নেতা হিসেবে ড. ইউসুফ আব্দুল্লাহ’র রয়েছে ব্যাপক সুনাম ও জনপ্রিয়তা রয়েছে। রাজনৈতিক স্বীকৃতি ও ভিশন ২০২১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আধুনিক প্রজন্মের প্রতিনিধি হিসেবে আগামীদিনে সংসদ সদস্য হিসেবে আমরা তাঁকে দেখতে চাই ।