স্বর্ণ আত্মসাতের মামলায় তিন পুলিশ সদস্যের ৫ বছরের কারাদণ্ড – Satkhira Vision

May 13, 2021, 3:56 am

সংবাদ শিরোনাম :
তালা: অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন সাংবাদিক নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরা: এতিমদের সাথে ছাত্রলীগের ইফতার সাতক্ষীরা: সাপ্তাহিক সূর্যের আলোর উদ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ স্ত্রী হত্যা মামলায় সাবেক এসপি বাবুল আক্তার গ্রেফতার সাতক্ষীরা: ভুল নাম্বারে চলে যাওয়া বিকাশের টাকা উদ্ধার করলো পুলিশ শ্যামনগর: আনসার ভিডিপি সদস্যদের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা প্যাকেজ বিতরণ তালাঃ হাজরাকাটীর সেলিম গাজীর পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  কলারোয়া: ফেনসিডিলসহ মহিলা মাদক ব্যবসায়ী আটক কলারোয়া পৌরসভায় সাড়ে ৩ হাজার পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ কালিগঞ্জ: ট্রাকের নিচে ঝাঁপ দিয়ে ঋণগ্রস্ত দলিল লেখকের আত্মহত্যা
স্বর্ণ আত্মসাতের মামলায় তিন পুলিশ সদস্যের ৫ বছরের কারাদণ্ড

স্বর্ণ আত্মসাতের মামলায় তিন পুলিশ সদস্যের ৫ বছরের কারাদণ্ড

এসভি ডেস্ক: স্বর্ণ আত্মসাতের এক মামলায় রামপুরা থানার সাবেক এসআই-সহ তিন পুলিশ সদস্যকে ৫ বছর ও এক সোর্সকে ৩ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে এ মামলার পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) ঢাকার বিভাগীয় বিশেষ জজ মিজানুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন। 

কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- রামপুরা থানার সাবেক এসআই মঞ্জুরুল ইসলাম, কনস্টেবল মো. আকাশ চৌধুরী ও কনস্টেবল ওয়াহিদুল ইসলাম। তাদেরকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া মাহফুজ আলম রনি নামে এক সোর্সকে ৩ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

২০১৪ সালের ১৩ মার্চ রামপুরা থানা পুলিশ রাজধানীর বনশ্রী এলাকায় একটি মাইক্রোবাস থেকে ২৩৫টি স্বর্ণের বারসহ গাড়ি আটক করে। সেসময় মাইক্রোবাস রেখে পালানোর সময় সমীর ও মুহিন নামের দুই ব্যক্তিকে আটক করা হয়। ঘটনার তিন দিন পর ৭০টি স্বর্ণের বার উদ্ধার দেখিয়ে সমীর ও মুহিনের বিরুদ্ধে রামপুরা থানায় একটি চোরাচালান মামলা দায়ের করা হয়। থানা হেফাজতে নেওয়ার পর ওই দুই আসামি গাড়িতে ২৩৫টি স্বর্ণের বার ছিল বলে জানায়।

পরে ডিএমপির কমিশনার বেনজীর আহমদের নির্দেশে মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে ডিবি। ডিবির পৃথক তিনটি দল নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর ও বগুড়ায় অভিযান চালিয়ে পুলিশের তিন সদস্যসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করে। তাদের কাছ থেকে বাকি ১৪৯টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করে। পরে ২০১৪ সালের ৭ এপ্রিল দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এই মামলা দায়ের করে। এ ঘটনায় রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালাকে ক্লোজড করা হয়।

মামলায় ২০১৫ সালের ১৪ মে মাসে আদালতে দুদকের উপ-পরিচালক মির্জা জাহিদুল আলম দণ্ডপ্রাপ্ত ৩ জনসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। একই বছরের ১৫ অক্টোবর মামলায় আদালত অপর আসামি মাইক্রোবাস চালক সজিব শিকদারকে অব্যাহতি দিয়ে দণ্ডিতদের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেন। বিচারকালে আদালত ৩০ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। দুদকের পক্ষে আদালতে প্রসিকিউটর রুহুল ইসলাম খান মামলা পরিচালনা করেন।


 

 




All rights reserved © Satkhira Vision

Design & Developed BY Asha IT