ঘোনা প্রতিনিধি: পারিবারিক কলহের জেরে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে গৃহবধূ রেশমা খাতুন (২২)আত্নহত্যা করেছে। 
সোমবার রাতে সাতক্ষীরা সদরের ঘোনায় এ ঘটনা ঘটে। 
এক সন্তানের জননী ওই গৃহবধু সাতক্ষীরা সদরের ঘোনা  ইউপির ০১নং ওয়ার্ডের ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী এবং সদরের বাঁশদহা গ্রামের আব্দুস সবুরের মেয়ে। 
এলাকাবাসী সুত্রেজানাগেছে, বিয়ের পর থেকে রেশমা খাতুন ও তার  স্বামী ইসমাইল হোসেনের সম্পর্ক ভালোই ছিল। কিন্তু হঠাৎ তাদের মধ্যে কিছুদিন যাবত মনোমালিন্য শুরু হয়। এনিয়ে তাদের দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।
এরই সুত্রধরে সোমবার স্বামী ইসমাইল বাড়ি না থাকার সুুুুযোগে বিকালে রেশমা খাতুন গ্যাস ট্যাবলেট খায়। এ খবর স্বামী ইসমাইল মোবাইলের মাধ্যমে জানতে পেরে তৎক্ষনাৎ বাড়ি ফিরে স্হানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যায়। পরে অবস্থার অবনতি হলে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 
এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য আবুল বাসার বলেন, স্বামী-স্ত্রী ঝগড়ার উপর ভিত্তি করে রেশমা খাতুন কিটনাশক খেয়ে আত্নহত্যার চেষ্টা  করে।  স্হানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে শারিরিক  অবস্থার অবনতি হলে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 
সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছন, মৃতের   লাশ ময়নাতদন্ত শেষে  পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।