এসভি ডেস্ক: গত শনিবার বুলগেরিয়ায় বাস দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হন ২০ জন। এ দুর্ঘটনার ‘রাজনৈতিক দায়’ নিয়ে বুলগেরিয়ার পরিবহন, আঞ্চলিক উন্নয়ন ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে শুক্রবার বরখাস্ত করলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বয়কো বারিসভ। বয়কো বরিসভ বলেছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির জন্য পরিবহনমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং আঞ্চলিক উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রীকে রাজনীতিবিদ হিসেবে দায় নিতে হবে।

পরিবহনমন্ত্রী ইবাইলো দুর্ঘটনার দায় গ্রহণ করেছেন। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনার সমস্ত রাজনৈতিক দায়িত্ব নিয়ে আমরা সরে যাচ্ছি। আমাদের অবশ্যই সড়ক দুর্ঘটনা রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত ছিল।’

বুলগেরিয়ায় গত বছর সড়ক দুর্ঘটনার ৬৪৮ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ইউরোপ ও বলকান অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনাপ্রবণ দেশ হলো বুলগেরিয়া। চলতি বছরে এ সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। সরকারও নানাভাবে চেষ্টা করছে সড়ক দুর্ঘটনা থেকে বেরিয়ে আসতে।

গত শনিবারের বাস দুর্ঘটনার পর বিরোধী সমাজতান্ত্রিক দল সরকারের পদত্যাগ দাবি করে। বিরোধী দলের অভিযোগ, গত শনিবারের দুর্ঘটনা পরিবহন খাতে সরকারের দুর্নীতিরই ফলাফল মাত্র। তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা বলছেন, শুধু সমালোচনা ওঠার কারণেই তিন মন্ত্রীকে বরখাস্ত করা হয়নি। বরখাস্ত করা হয়েছে আগাম নির্বাচনের দাবি নিয়ে রাজনৈতিক উত্তেজনা কমাতে।

শনিবারের ওই দুর্ঘটনার তদন্ত চলছে। ঘাতক বাসচালকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে।